Logo
শিরোনাম :
শান্তিপূর্ণ ভাবে রাজাপালং ৯নং ওয়ার্ডের নির্বাচন সম্পন্ন পিতার আসনে ছেলে হেলাল উদ্দিন বিজয়ী  চকরিয়ায় কীটনাশক পানে পলিটেকনিক ছাত্রের আত্মহত্যা ব্যবসায়ীদের ক্ষোভ….. ঈদগাঁও বাজারে মলকান্ড : জনদূূর্ভোগ চরমে কক্সবাজারে নৌকা ভ্রমণে গিয়ে প্রাণ হারিয়েছেন দুই বন্ধু রামুতে ৪র্থ শ্রেণির ছাত্রী ও বাঁক প্রতিবন্ধী নারী ধর্ষণের শিকার টেকনাফে অস্ত্র ও ইয়াবাসহ আটক ১ টেকনাফে ১০ হাজার মিটার কারেন্ট জাল ধ্বংস দুর্নীতির মামলায় অধ্যক্ষ আব্দুর রহমানকে জেল হাজতে পাঠিয়েছে আদালত ঢাকা- নওগাঁ উপ-নির্বাচনের ফলাফল প্রত‌্যাখান করে বান্দরবান জেলা বিএনপির প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ পেকুয়ায় বড় ভাই ছোট ভাইকে কামড়িয়ে আঙ্গুল বিচ্ছিন্ন

ঘরের ছেলে ঘরে ফিরে এলেন কুতিনিয়ো

স্পোর্টস ডেস্ক। / ৪০ বার
আপডেট সময় : বুধবার, ২ সেপ্টেম্বর, ২০২০

এক মৌসুমের জন্য তাকে ধারে পাঠিয়েছিল বার্সেলোনা। বায়ার্ন মিউনিখকে বুন্দেসলিগা ও জার্মান কাপের পাশে চ্যাম্পিয়নস লিগ, অর্থাৎ ত্রিমুকট (ট্রেবল) জিতিয়ে ফিরে এলেন ফিলিপ্পে কুতিনিয়ো। নিজের ভবিষ্যতের সামনে বড় প্রশ্নচিহ্ন নিয়ে এমন দিনে ফিরলেন, যেদিন মেসির ভবিষ্যৎ নিয়ে বার্সেলোনা সভাপতির সঙ্গে বৈঠকে বসছেন লিওনেল মেসির বাবা।

বুধবার মিউনিখ ছেড়ে আসার আগে কুতিনিয়ো ইনস্টগ্রামে ধন্যবাদ জানিয়েছেন বায়ার্নকে, ‘ক্লাবের সব সমর্থক, খেলোয়াড় ও স্টাফকে এই মৌসুমটির জন্য ধন্যবাদ জানাই। এটা সত্যিই অসাধারণ এক মৌসুম গেছে যেখানে আমি অনেক কিছু শিখেছি এবং অবিস্মরণীয়ভাবে ট্রেবল জিতেছি।’ বায়ার্ন মিউনিখের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে ক্লাবটির প্রধান কার্ল হেইঞ্জ রুমেনিগে ধন্যবাদ জানিয়েছেন কুতিনিয়োকেও, ‘ফিলিপ্পে কুতিনিয়োকে অনেক ধন্যবাদ। তার সৃষ্টিশীলতা ও দুর্দান্ত নৈপুন্য এই ত্রিমুকুটজয়ী মৌসুমে আমাদের ফুটবলকে উজ্জীবিত করেছে। বিশেষ করে চ্যাম্পিয়নস লিগে তার পারফরম্যান্স প্রমাণ করেছে তাকে ধারে নেওয়াটা ছিল দারুণ সিদ্ধান্ত।’

এই চ্যাম্পিয়নস লিগেই মূল ক্লাব বার্সেলোনার ‘নির্মম ঘাতক’ হয়েছেন ২৮ বছর বয়সী ফরোয়ার্ড। ১৪ আগস্ট লিসবনের কোয়ার্টার ফাইনালে বার্সেলোনাকে ৮-২ গোলে খুন করার ম্যাচে তিনি নিজে করেছেন দুই গোল, করিয়েছেন একটি। নেইমারের বিকল্প হিসেবে লিভারপুল থেকে রেকর্ড ট্রান্সফার ফি-তে এনে হতাশ বার্সা কিনা তাকে ধারে পাঠাতে বাধ্য হয়েছিল বায়ার্নে! সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে কুতিনিয়ো জার্মান ক্লাবটিতে ৩৮ ম্যাচ খেলে ১১টি গোল করেছেন। ৯টি গোলে সহায়তা করেছেন। প্রত্যাশা অনুযায়ী তাকে না কেনায় বার্সেলোনা আরেকবার মানসিক আঘাত পেয়েছে বায়ার্নের কাছে।

বিশাল বেতনের কারণে নতুন মৌসুমেও ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ডের ন্যু ক্যাম্পে থাকাটা অনিশ্চিত। তাকে অন্য কোথাও পাঠিয়ে বার্ষিক বেতনের অঙ্কটা অন্তত কম রাখতে চায় বার্সা। শোনা যায় ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে বিক্রির চেষ্টায় তার এজেন্ট কিয়া জোরাবখিয়ানের সঙ্গে কথাবার্তা চলছে। আর্সেনালকে জড়িয়ে একবার জোরালো গুঞ্জন উঠেছিল, কিন্তু ট্রান্সফার ফি বা বেতন যে বড্ড বেশি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর