Logo
শিরোনাম :
কুতুবদিয়ার সন্তান কেন্দ্রীয় মৎস্যজীবী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নির্বাচিত চাঁপাইনবাবগঞ্জে ‘কমিউনিটি পুলিশিং ডে’ উদযাপন শিবগঞ্জে প্রশাসনের অভিযান: ১৬ লাখ টাকার অবৈধ মোবাইল জব্দ মহানবী (সা.) এর অবমাননা, প্রতিবাদে চাঁপাইনবাবগঞ্জে মানববন্ধন ঈদগাঁওতে সেচ্ছাসেবী সংগঠক রানার উপর হামলা : সুষ্ট বিচার দাবী কক্সবাজারের কলাতলী টিএন্ডটি পাহাড়ে বসতবাড়ী উচ্ছেদে গুলিবর্ষণ, ৩ সাংবাদিক আহত কক্সবাজার সদর যুবলীগের বর্ধিত সভায়…. জালালাবাদ-পোকখালী-ইসলামাবাদ-পিএমখালী যুবলীগের সম্মেলনের তারিখ ঘোষনা বান্দরবানে স্থানীয় সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভায় প্রেস কাউন্সিলের চেয়ারম্যান সাংবাদিকতার যোগ‍্যতা সংক্রান্ত আইনের খসড়া সরকারের কাছে পাঠানো হয়েছে টেকনাফে হোয়াইক্যং হাইওয়ে থানায় কমিউনিটি পুলিশিং ডে-২০২০ পালিত ধর্ষণের শিকার এক নারীর গল্প!

চিকিৎসকবিহীন স্বাস্থ্য কেন্দ্র ?

এম আবু হেনা সাগর,ঈদগাঁও / ৪৩ বার
আপডেট সময় : বুধবার, ৭ অক্টোবর, ২০২০

কক্সবাজার সদরের ইসলামাবাদ স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রে চিকিৎসকবিহীন স্বাস্থ্য সেবা চলছে। স্বাস্থ্য বিভাগের সবকটি পদ খালি। খেয়াল নেই সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের। এতে করে, স্বাস্থ্য সেবা বঞ্চিত হচ্ছে রোগীরা।

জানা যায়, সদরের ইসলামাবাদে বিগত ২০১০ সালে স্থাপিত হয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র। স্বাস্থ্য বিভাগে পদ রয়েছে ৩টি। একজন মেডিকেল অফিসার, একজন ফার্মাসিস্ট, একজন উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার। কিন্ত “সবকটি পদই খালি”। অর্থাৎ এ কেন্দ্রে নেই কোন স্বাস্থ্য। স্বাস্থ্য সেবা নিতে আসা রোগীদের সামাল দিতে হচ্ছে পরিবার কল্যাণে থাকা কর্মীদের।

সূত্র জানায়, ইউনিয়নের ইউছুপেরখীল মসজিদের পাশে অবস্থিত এ কেন্দ্রের যাত্রাকালে প্রায় ৬ মাস পর্যন্ত মেডিকেল অফিসার ছিলেন ডা: তৃণা শাহা, তিনি অন্যত্র বদলী হলে তার স্থলাভিষিক্ত হন ডা: বৈশাখী পাল। তা-ও আবার কপাল পোড়া। তিনি কোন মতে বছর কাটিয়ে চলে যান। কেন্দ্রটি পরিবার কল্যাণ ইনচার্জের ঘাড়ে। বিশাল এলাকায় প্রতিদিন স্বাস্থ্য সেবা নিতে যাওয়া রোগীরা সেবা পাচ্ছেনা।

স্থানীয়রা জানান, এই কেন্দ্রে মেডিকেল অফিসার সহ স্বাস্থ্য বিভাগের সবগুলো পদ দীর্ঘদিন ধরে শূন্য থাকায় দারুণভাবে আমরা এলাকাবাসী সুষ্ট চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছি। সংশ্লিষ্ট উর্ধতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি চেয়েছেন এলাকার লোকজন।

ইসলামাবাদ ইউপি চেয়ারম্যান নুর ছিদ্দিক জানান, স্বাস্থ্য কেন্দ্রে মেডিকেল অফিসার ও উপ-সহকারী মেডিকেল অফিসার না থাকায় অধিকার বঞ্চিত হচ্ছেন রোগীরা।

কেন্দ্রের ইনর্চাজ জানান, দীর্ঘদিন ধরে স্বাস্থ্য অংশে কোন জনবল নেই। যার ফলে, একদিকে রোগিদের বুঝাতে পারছিনা, অন্যদিকে কেন্দ্রটি চালাতে খুবই কষ্টের শিকার হচ্ছি। তবুও সরকারি দায়িত্ব পালন অব্যাহত রেখেছি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর