Logo
শিরোনাম :
সংগঠনকে সুসংগঠিত করতে…. কক্সবাজার সদর যুবলীগের বর্ধিত সভা ৩০ অক্টোবর ঈদগাঁও সাংগঠনিক উপজেলা বিএনপির দ্বি-বার্ষিকী সম্মেলন ও কাউন্সিল ৩০ অক্টোবর রাইখালীতে প্লাস্টিকের বস্তায় ২’শ লিটার মদ পাচারের সময় নারী মাদক বিক্রেতা আটক নির্বাচনের আগেই বান্দরবান পৌরসভায় ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকান্ড শুরু, প্রায় ৭৪ কোটি টাকার উন্নয়ন কর্মকাণ্ড চলছে বান্দরবান পৌরসভা চাঁপাই নবাবগঞ্জের শিবগন্জে সিআইডি দেখে খেলতে গিয়ে গলায় ফাঁস লেগে প্রাণ গেল শিশুর ডিইউজে সভাপতি কুদ্দুস আফ্রাদের ওপর হামলায় বিএমএসএফের় তীব্র প্রতিবাদ চাঁপাই নবাবগন্জের শিবগঞ্জে ৫শ মিটার কারেন্ট জাল ধ্বংস টেকনাফ প্রেসক্লাব ভবন নির্মাণ কাজ উদ্বোধন গোদাগাড়ীতে ৪ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন ১০০ গ্রাম হেরোইনসহ একজন মাদক ব্যবসায়ী আটক মহেশখালীতে পুকুরে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু

কক্সবাজারে সন্ত্রাসীদের চাপাতিতে ঢাবি শিক্ষার্থী গুরুতর আহত

কক্সবাজার প্রতিনিধি।  / ৬৪ বার
আপডেট সময় : রবিবার, ১১ অক্টোবর, ২০২০

কক্সবাজার সদরের খরুলিয়ায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) এক শিক্ষার্থীকে কুপিয়ে জখম করেছে স্থানীয় সন্ত্রাসীরা। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ওই শিক্ষার্থীর নাম রাসেল রহমান (২১)। তিনি ঢাবির জাপানিজ স্টাডিজ বিভাগের ২য় বর্ষের ছাত্র।

রোববার (১১ অক্টোবর) বিকালের দিকে ঝিলংজার ৯ নং ওয়ার্ডের খরুলিয়া মুন্সিপাড়ার নিজ বাড়ীতে এই ঘটনা ঘটে। তিনি একই এলাকার প্রতিবন্ধী হাবিবুর রহমানের ছেলে।

আহত শিক্ষার্থীর মা জাহানারা বেগম জানান, তাদের বাড়ীর পার্শ্ববর্তী মৃত মকবুল মিস্ত্রির পরিবারের সাথে দীর্ঘদিন ধরে বসতভিটা সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছিলো। রোরবার বিকালে বাড়ির উঠানে জমে থাকা পানি নিষ্কাশনের ব্যাপারে সামান্য কথা কাটাকাটি হলে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে মকবুলের ছেলে মো. ইউনুস, মো. কবির ও মো. শফি তারা সহোদর তিন ভাইসহ একদল সন্ত্রাসী বাড়ির ভেতরে ঢুকে হামলা, ভাংচুর ও লুটপাট চালাই।

এসময় তাদেরকে বাধা দিলে ধারালো চাপাতি দিয়ে উপর্যুপরি কুপিয়ে বাড়ীতে থাকা ঢাবি শিক্ষার্থী রাসেলকে গুরুতর আহত করে। পরে এলাকাবাসী তাকে উদ্ধার কর সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। বর্তমানে তার অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

এদিকে এলাকাবাসী জানান, স্থানীয় মকবুল মিস্ত্রির ৭ ছেলে এলাকার মানুষের ওপর প্রতিনিয়তই অত্যচার চালিয়ে যাচ্ছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ঝিলংজা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান টিপু সুলতান বলেন, আহত ওই শিক্ষার্থী অত্যন্ত হতদরিদ্র পরিবারের ছেলে। তার বাবা একজন প্রতিবন্ধী। গ্রামবাসীর দেয়া চাঁদার টাকায় ছেলেছি পড়ালেখা করে। তার উপর হামলা ও পরিবারটির সাথে এমন নিষ্ঠুর ঘটনাটি মেনে নেওয়া যায়না। তিনি প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

এ ব্যাপারে কক্সবাজার সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মুনিরুল গিয়াস বলেন, বিষয়টি জেনেছি। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর