Logo
শিরোনাম :
চাঁপাইনবাবগঞ্জ আদালত প্রাঙ্গণে বিপুল পরিমাণ মাদক ধ্বংস স্বাধীনতার ৫০ বছর পর বাড়ি পাচ্ছেন উখিয়ার বীর মুক্তিযোদ্ধা দুদু মিয়া চিরতরে বন্ধু সংগঠন উখিয়া উপজেলা শাখার শপথ গ্রহণ,সংবর্ধনা ও পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত চৌফলদন্ডীতে গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টের আনুষ্টানিক উদ্বোধন উখিয়ায় ইয়াবা সিন্ডিকেট পিতা-পুত্রের সন্ত্রাসী হামলায় ৩ এনজিও কর্মকর্তা আহত শীতবস্ত্র বিতরন উপলক্ষে…… মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি ফাউন্ডেশনের প্রস্তুতি সভা উখিয়ায় সবজি বাজারে এখনো ফেরেনি স্বস্তি শিমুল ধর্মীয় পরিচয়ে গোপন করে মিথ্যা বিয়ের নাটক সাজিয়ে মুসলিম নারীকে ফাসিয়েছে সংবাদ সম্মেলনে নাজনীন পোকখালী যুবলীগের কাউন্সিলে আমজাদ সভাপতি, ইত্তেহাদ সম্পাদক নিবার্চিত কক্সবাজারে ট্রাভেলেটস অফ বাংলাদেশ’–ভ্রমণকন্যা সংগঠনের ৪র্থ বর্ষপূর্তি উদযাপন

চাঁপাইনবাবগঞ্জে ফুটপাত দখল করে অবৈধ স্থাপনা, পলিথিন-আর্বজনায় বন্ধ ড্রেন

মোঃ মেশবাহুল হক চাঁপাই নবাবগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি / ৪৬ বার
আপডেট সময় : বুধবার, ৪ নভেম্বর, ২০২০

চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার বিভিন্ন রাস্তার ফুটপাত দখল করে গড়ে উঠেছে অবৈধ স্থাপনা ও দোকানপাট। এসব অবৈধ দখলদার, পথচারী ও নাগরিকদের ফেলে দেয়া নিষিদ্ধ পলিথিন ও ময়লা-আর্বজনায় বন্ধ হচ্ছে পৌরসভার ড্রেন। নিদিষ্ট স্থান বা ডাস্টবিন থাকলেও পৌরসভার ড্রেনই হয়ে উঠেছে অবৈধ দখলদার ও নাগরিকদের ময়লা-আর্বজনা ফেলার ভাগাড়। এতে ড্রেন বন্ধ হয়ে পানি নিষ্কাশনের জন্য নির্মিত ড্রেনেজ ব্যবস্থা হয়ে পড়েছে অকার্যকর। ময়লা-আর্বজনায় ড্রেন বন্ধ হওয়ায় পানি নিষ্কাশনে কোন সুযোগ নেয়। ফলে একটু বৃষ্টি হলেই রাস্তায় জমা হয় হাঁটু ভর্তি পানি। এমনকি অবৈধ দখলদারদের ড্রেনে ফেলে দেয়া ময়লা-আর্বজনা থেকে ছড়াচ্ছে প্রচন্ড র্দুগন্ধ।

জেলা শহরের ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নবাবগঞ্জ সরকারি কলেজ গেটের সামনের রাস্তার ফুটপাতে গড়ে উঠেছে নানারকম স্থায়ী ও ভ্রাম্যমাণ দোকানপাট। এসব দোকানের পরিত্যক্ত নিষিদ্ধ পলিথিন ও ময়লা-আর্বজনা ফেলা হয় পানি নিষ্কাশনের ড্রেনে। এতে ড্রেনে এসব ময়লা আর্বজনায় ভতি হয়ে ছড়াচ্ছে দুর্গন্ধ ও বন্ধ হচ্ছে পানি নিষ্কাশনের পথ। বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ড্রেনের বেহাল দশা নিয়ে গত ২ নভেম্বর সোমবার বেলা ৩টা ৩৫ মিনিটে একটি পোস্ট করেন জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার একজন চিকিৎসক। পোস্টে অনেকেই বিভিন্ন মন্তব্য জানিয়েছেন। নাজমুস সাকিব সাদ নামক ফেসবুক আইডি থেকে একজন লিখেছেন, যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহন করা হোক। পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন নগর চাই।

শহরে পর্যাপ্ত ডাস্টবিনের ব্যবস্থা না থাকাকে দায়ী করে শ্যামল পাল তার মন্তব্যে বলেছেন, শহরে পলিথিন বা খালি প্যাকেট ফেলার জায়গা না থাকায় বাধ্য হয়েই জনসাধারণ ড্রেনে ফেলে দেয়। আব্দুর রব জনসাধারনকে দায়ী করলেও রাহাত খান বলছেন দোকানদার অপরাধী। জুনাইদ ইসলাম ফায়িজ লিখেছেন, যারা এভাবে ড্রেনে ময়লা-আর্বজনা তাদের জরিমানা করা হোক। তাহলেই সব ঠিক হয়ে যাবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর