Logo

উখিয়ায় ওয়ার্ল্ড ভিশনের গুদাম থেকে বিপুল ধারালো সরঞ্জাম জব্দ, কারণ দর্শানোর নোটিশ

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ / ৪৩ বার
আপডেট সময় : সোমবার, ১৪ ডিসেম্বর, ২০২০

কক্সবাজারের উখিয়ায় ওয়ার্ল্ড ভিশনের গুদাম থেকে বিপুল পরিমাণ ধারালো সরঞ্জাম জব্দ করেছে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। এধরণের সরঞ্জাম বিতরণের অনুমতি পত্র না থাকায় ওয়ার্ল্ড ভিশনকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয় বলে জানিয়েছেন উখিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার নিজাম উদ্দিন আহমেদ।

১৪ ডিসেম্বর (সোমবার) বিকেলে উখিয়ার রাজাপালং ইউনিয়নের মুহুরীপাড়া এলাকায় এনজিও ওয়ার্ল্ড ভিশনের ওয়্যারহাউজ (গুদাম) থেকে এসব দেশীয় ধারালো সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়।

এ প্রসঙ্গে উখিয়ার ইউএনও বলেন, চট্টগ্রাম নিউজসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হলে ওয়ার্ল্ড ভিশন নামক এনজিও’র একটি গুদামে ধারালো দা, শাবল ইত্যাদি মজুদ অবস্থায় পাওয়া যায়। এ বিষয়ে উপজেলা প্রশাসন বা জেলা প্রশাসন কিংবা আরআরআরসি’র কোন ধরণের অনুমতিপত্র দেখাতে পারেনি। পরে ধারালো যন্ত্রপাতি গুলো জব্দ করে উখিয়া থানার ওসি (তদন্ত) গাজী সালাহ উদ্দিনের জিম্মায় দেয়া হয় বলে তিনি জানান।

সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের অনুমতি বিহীন এধরণের দেশীয় অস্ত্র রোহিঙ্গাদের মাঝে সরবরাহের জন্য মজুদ করার বিষয়ে ওয়ার্ল্ড ভিশনের কো-অর্ডিনেটর আবদুল বারেক এর মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও রিসিভ না করায় তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

এদিকে ক্যাম্প কেন্দ্রিক সেবার নামে কিছু কিছু এনজিও সংস্থা রোহিঙ্গাদের নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিস সরবরাহের নামে দেশীয় অস্ত্র সরবরাহ করা নিয়ে উদ্বেগ উৎকণ্ঠায় রয়েছে স্থানীয়রা। রোহিঙ্গারা বর্বর প্রকৃতির। তারা যে কোন মুহুর্তে মানুষ খুন করতে দ্বিধা করে না। তৎমধ্যে এনজিও কর্তৃক এধরণের দেশীয় অস্ত্র সরবরাহের বিষয়টি রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনকে বাধাঁগ্রস্থ করার নীল নকশা বলে ধারণা করছে সুশীল সমাজ প্রতিনিধিরা।

উখিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি সাঈদ মুহাম্মদ আনোয়ার বলেন, এনজিও গুলোকে প্রশাসনের নির্দেশনা মেনে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কাজ করা উচিত। এ ধরণের ধারালো সরঞ্জাম বিতরণের বিষয়টি আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে কড়া নজরদারী ও খতিয়ে দেখার আহবান জানান।

তিনি আরো বলেন, এর আগেও রোহিঙ্গাদেরকে কৃষি উপকরণ নিড়ানির মতো এনজিও সংস্থা মুক্তি কক্সবাজার এবং শেড এর ধারালো সরঞ্জাম উদ্ধারের পর বেশকিছু প্রকল্প বন্ধ করে দেয় এনজিও ব্যুারো।

উল্লেখ্য, গত ২০১৯ সালের ২৬ আগস্ট কোটবাজার স্টেশনে ভালুকিয়া সড়কের রনজিত দাশের কামারের দোকান থেকে এনজিও মুক্তি’র নামে অর্ডারকৃত বিপুল বেশ কিছু ধারালো অস্ত্র জব্দ করে উখিয়া উপজেলা প্রশাসন। পরে ৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ উখিয়ার মালভিটাপাড়াস্থ শেড অফিস থেকে বিপুল পরিমাণ ধারালো দা, খুন্তি, বেলচা, হাতুড়ি উদ্ধার করা হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর