Logo
শিরোনাম :
গোমাতলীতে সমাজ কল্যাণ পরিষদের উদ্যোগে তাফসীরুল কোরআন মাহফিল সম্পন্ন উখিয়ায় বন বিভাগের উচ্ছেদ অভিযানে একএকর বনভুমি উদ্ধার জালালাবাদ চেয়ারম্যান রাশেদের উপর হামলা, বিক্ষোভ সমাবেশ কাল ঈদগাঁওর সংবাদকর্মী সাগর অসুস্থ : দোয়া কামনা উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আগুনে পুড়লো ৪টি শিশু শিক্ষা কেন্দ্র ধেচুয়াপালং এর মোহাম্মদ আবদুল্লাহ চৌধুরী আর নেই ১৭ বছরের ক্লাব ক্যারিয়ারে প্রথম লালকার্ড দেখলেন মেসি জালালাবাদ চেয়ারম্যান রাশেদের উপর হামলা, বিক্ষোভে উত্তাল ঈদগাঁও চাঁপাই নবাবগঞ্জে পেট জোড়া লাগানো যমজ শিশুদুটিকে বাঁচানো গেলো না নাইক্ষ্যংছড়িতে ৩ অবৈধ ইটভাটা গুড়িয়ে দিলেও নজর পড়েনি মেম্বার আবুল কালাম,পলাশ বড়ুয়ার ইটভাটায়

পরকীয়ার টানে গোপন সুড়ঙ্গ…

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : / ৪৯ বার
আপডেট সময় : সোমবার, ৪ জানুয়ারী, ২০২১

সুড়ঙ্গ খুঁড়ে মাদক চোরাচালানের জন্য মেক্সিকো বেশ পরিচিত। দেশটিতে প্রায়ই মাদক পাচারের গোপন সুড়ঙ্গের সন্ধান পেয়ে থাকে পুলিশ। তবে এবার মনে হচ্ছে, রোমান্টিক সম্পর্ক গোপন রাখতেও মাঝে মধ্যে সুড়ঙ্গের ব্যবহার হচ্ছে।

ওডিটি সেন্ট্রালের খবরে বলা হয়েছে, মেক্সিকোতে গোপন সুড়ঙ্গ খুঁড়ে পরকীয়া চালিয়ে যাওয়া এক স্ত্রী ধরা পড়েছেন তার স্বামীর হাতে।

ঘটনা হলো, মেক্সিকোর ভিলাস দেল প্রডো ১ শহরের রাজমিস্ত্রী অ্যান্টোনিওর সঙ্গে টিজুয়ানা এলাকার এক বিবাহিত নারীর পরকীয়ার সম্পর্ক ছিল। কিন্তু কেউ যাতে অ্যান্টোলিওকে তার গোপন প্রেমিকা পামেলার সঙ্গে দেখা করতে না দেখেন, তা নিশ্চিত করার জন্য তিনি সুড়ঙ্গ খুঁড়ার কাজ শুরু করেন। যা তার বাড়ি থেকে কয়েক রাস্তা পরে প্রেমিকার বাড়ি পর্যন্ত দীর্ঘ। সুড়ঙ্গের কাজ শেষ করার পর তিনি নিয়মিত সেই সুড়ঙ্গ দিয়ে প্রেমিকা পামেলার ঘরে উপস্থিত হতেন।

কিন্তু বিপত্তি বাঁধে একদিন পামেলার স্বামী জর্গে কাজ থেকে দ্রুত বাড়ি ফেরার পর। তিনি বাড়িতে তৃতীয় করো উপস্থিতির টের পান। কিন্তু সুড়ঙ্গ দিয়ে অ্যান্টোনিও পালিয়ে যান। জর্গে পুরো বাড়ি খুঁজেও কারো দেখা না পেয়ে বেডরুমের বিছানার নিচে উঁকি দিতেই গোপন সুড়ঙ্গের দেখা পান।

এরপর অপমানিত স্বামী নিজেই গোপন সুড়ঙ্গের মধ্যে হামাগুড়ি দিয়ে অ্যান্টোনিওর বাড়িতে এসে পৌঁছান। সেখানে অ্যান্টোনিও তাকে চুপ করে থাকার জন্য অনুরোধ করেন, কারণ তার স্ত্রী পাশের ঘরে ছিল এবং তিনি চাননি যে তার বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্কের বিষয়টি তার স্ত্রী জানুক। কিন্তু এমন আবদার শুনে রাগে ফেটে পড়েন জর্গে এবং দুজনের মধ্যে মারামারি শুরু হয়। নিজের বাড়িতে অপরিচিত এক লোককে তার স্বামীকে মারধর করতে দেখে স্তম্ভিত স্ত্রী পুলিশকে ফোন করেন। যার ফলাফল স্ত্রীর কাছে অ্যান্টোনিওর অবিশ্বস্ততা স্বীকার করা ছাড়া উপায় ছিল না।

সম্প্রতি মেক্সিকোর সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবিসহ এই ঘটনাটি ভাইরাল হওয়ার পর, তা জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের খবরে পরিণত হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর