Logo
শিরোনাম :
চকরিয়ায় অবৈধ বালু উত্তোলনকালে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান: ড্রেজারসহ ৮টি মেশিন ধ্বংস,২৫ হাজার টাকা জরিমানা আদায় মহেশখালী থানা পুলিশের বিশেষ অভিযানে অপহৃত কিশোর’কে ৫ মাস পর উদ্ধার। ইসলামপুরে মালবাহী ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে আহত ৬  কক্সবাজারে সেই তিন পুলিশ সদস্য সাময়িক বরখাস্তঃ ২ দিনের রিমান্ডে রামুর গর্জনিয়া মাছ বাজার রাস্তার ওপর পঁচা পানির দুর্গন্ধ বাদাম-চকলেটের প্যাকেটে ১৭ হাজার ইয়াবা, গ্রেপ্তার ১ জনগণের প্রসংশায় ভাসছেন মহেশখালী থানার (ওসি) আবদুল হাই চাঁপাই নবাবগঞ্জে ১০ দফা দাবীতে নিরাপদ সড়ক চেয়ে মানববন্ধান পেকুয়ায় কলেজ ছাত্রকে কুপিয়ে জখম,আটক-১ ঈদগাঁওতে মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের উদ্যোগ কলম বিরতি ও প্রতিবাদ সমাবেশ সম্পন্ন

চতুর্থ দফায় আজ ও কাল ভাসানচরে যাচ্ছে  ৩ হাজার রোহিঙ্গা

মোঃ শহিদ উখিয়া প্রতিনিধি। / ৬৬ বার
আপডেট সময় : শনিবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

চতুর্থ দফায় আজ রোববার ১৪ ফেব্রুয়ারী ও কাল সোমবার ১৫ ফেব্রুয়ারী ২ দিনে আরো ৩ হাজার রোহিঙ্গা শরনার্থীকে নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলার ভাসানচরে নিয়ে যাওয়া হবে। কক্সবাজারের উখিয়া-টেকনাফ থেকে ভাসানচরে এটি হবে চতুর্থ দফায় রোহিঙ্গা শরনার্থী স্থানান্তর। সংশ্লিষ্ট সুত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।
ভাসানচরে নিয়ে যেতে শুক্রবার রাত থেকে ২০টি মিনিবাস ও মাল বহনকারী ১০টি ডাম্পার ট্রাকের মাধ্যমে রোহিঙ্গা শরনার্থী ক্যাম্প থেকে প্রায় ৬০০ রোহিঙ্গা শরনার্থীকে নিয়ে আসা হয়েছে ট্রানজিট পয়েন্ট উখিয়া ডিগ্রি কলেজ মাঠে। কুতুপালং ক্যাম্পের রোহিঙ্গা নেতা মোহাম্মদ নুর ও মোহাম্মদ হোছন জানান  শুক্রবার যেসব রোহিঙ্গা শরনার্থী ক্যাম্প থেকে ভাসানচরে নেওয়ার জন্য ট্রানজিট পয়েন্টে আনা হয়েছে, সেগুলো হলো-বালুখালী ক্যাম্প নম্বর-৮ পূর্ব, ৯, ১০, ১১, ১২ কুতুপালং ক্যাম্প-৪ইস্ট ওয়েষ্ট মধুরছড়া লম্বাশিয়া ।রোহিঙ্গা শরনার্থীদের এই দলটি আজ(কাল) রোববার ভাসানচরের উদ্দ্যেশে বাসে করে রওনা দিয়ে চট্টগ্রাম যাবে। চট্টগ্রাম থেকে সমুদ্র পথে জাহাজে করে ভাসানচরে নিয়ে যাওয়া হবে তাদেরকে।
কাল সোমবার ১৫ ফেব্রুয়ারী কুতুপালং-১ ইস্ট, ২ ইস্ট, এবং ২ ওয়েস্ট ক্যাম্প থেকে আরও প্রায় এক হাজার পাচ শতাধিক রোহিঙ্গা শরনার্থীর পৃথক একটি দল ভাসানচরে রওনা দেওয়ার কথা রয়েছে। তাদেরকে শনিবার বিকেলে ক্যাম্প থেকে ট্রানজিট পয়েন্ট উখিয়া ডিগ্রি কলেজ মাঠে আনা হচ্ছে।
কুতুপালং ক্যাম্পের চেয়ারম্যান হাফেজ জালাল আহমদ জানিয়েছেন, রোহিঙ্গারা ভাসানচরে যেতে দিন দিন আগ্রহী হয়ে উঠেছে। ইতিমধ্যে স্বেচ্ছায় ক্যাম্প ইনচার্জের নিকট ভাসানচরে যেতে আগ্রহীদের তালিকা যারা জমা দিয়েছিল, তারা আজ ও কাল ভাসানচরে যাচ্ছে। চতুর্থ দফায় দুইদিনে রোহিঙ্গাদের বিশাল বহর স্বেচ্ছায় ভাসানচরে যাওয়ার সময় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য ও প্রশাসনিক কর্মকর্তারা তাদের নিরাপত্তা ও প্রয়োজনীয় সহায়তা দিচ্ছে।
এর আগে তিন দফায় প্রায় ৬ হাজার ৯৯৪ জন রোহিঙ্গা শরনার্থীকে ভাসানচরে পাঠানো হয়েছে।এর আগে সমুদ্র পথে অবৈধভাবে মালয়েশিয়া যেতে না পেরে ৩০৬ জন রোহিঙ্গা শরনার্থীকে সমুদ্র থেকে উদ্ধার করে ভাসানচরে রাখা হয়েছে।
উখিয়া-টেকনাফে আশ্রিত ৩৪ টি রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে কমপক্ষে এক লক্ষ রোহিঙ্গা শরনার্থীকে নোয়াখালীর হাতিয়ার ভাসানচরে স্থানান্তর করার টার্গেট রয়েছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। সুত্রমতে, আগামী ফেব্রুয়ারীর শেষ সপ্তাহে ভাসানচরে যেতে আগ্রহী রোহিঙ্গা শরনার্থীদের আরো একটি দল উখিয়া-টেকনাফ এর শরনার্থী ক্যাম্প থেকে পঞ্চম দফায় ভাসানচরে স্থানান্তরের প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। কক্সবাজার অতিরিক্ত শরনার্থী ত্রাণ প্রত্যাবাসন কমিশনার মোহাম্মদ শামশু দৌহা জানান রোহিঙ্গাদের খাবার ও স্বাস্থ্য সেবা দিয়ে রোববার ও সোমবার ভাসানচরের উদ্দেশ্য নিয়ে যাওয়া হবে। কক্সবাজার শরনার্থী প্রত্যাবাসন কমিশনার শাহ রেজুওয়ান হায়াত জানান পর্যাক্রমে লক্ষাধিক রোহিঙ্গাকে ভাসানচরে নিয়ে যাওয়া হবে। উল্লেখ্য যে, ২০১৭ সালের ২৫ আগষ্টের পর মিয়ানমার সামরিক সরকারের চরম নির্যাতনে রোহিঙ্গারা পালিয়ে এসে উখিয়া-টেকনাফে ৩৪টি ক্যাম্পে আশ্রয় নিয়েছে। এছাড়াও নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুমের শূন্য রেখায় ৪ হাজারের অধিক রোহিঙ্গাকে সরকার সাহায্য সহযোগিতা দিয়ে আসছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর