Logo

স্ত্রীর পরকীয়া সইতে না পেরে আত্মহত্যা করলেন স্বামী

নিজস্ব প্রতিবেদক। / ৪৮ বার
আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী, ২০২২

প্রতিবেশী যুবকের সঙ্গে পরকীয়ার জড়িয়েছিল স্ত্রী। তা সহ্য করতে না পেরে বিষপান করে আত্মহত্যার পথ বেছে নিলেন যুবক। ঘটনাটি হুগলির চুঁচুড়া রবীন্দ্রনগর পশ্চিমপাড়া এলাকার। মৃতের নাম সুশান্ত মিস্ত্রি (৪০)। ঘটনাকে কেন্দ্র করে বুধবার দুপুরে তীব্র উত্তেজনা ছড়াল এলাকায়। ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী মৃতের স্ত্রীকে জনতার হাতে তুলে দেওয়ার দাবিতে বিক্ষোভ করেন। পরিস্থিতি সামাল দিতে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় চুঁচুড়া থানার পুলিশ। দীর্ঘক্ষণ পর আয়ত্তে এসেছে পরিস্থিতি।

চুঁচুড়া থানার রবীন্দ্রনগর পশ্চিম পাড়ার বাসিন্দা মৃত সুশান্ত। বছর কুড়ি আগে রবীন্দ্রনগর পশ্চিমপাড়ার বাসিন্দা স্বাতীর সঙ্গে সুশান্তর বিয়ে হয়। শ্বশুরবাড়িতেই থাকতেন সুশান্ত। শ্বশুরবাড়ির কাছেই তার নিজের মিষ্টির দোকান রয়েছে। প্রতিবেশীরা জানায়, অত্যন্ত শান্ত প্রকৃতির সুশান্ত সকলের সঙ্গে মিলেমিশে থাকতেন। কোনওদিন কারওর সঙ্গে ঝগড়াঝাটি করত না। এলাকাবাসীর অভিযোগ, সম্প্রতি রবীন্দ্রনগরের একটি ছেলের সঙ্গে সুশান্তর স্ত্রীর বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক গড়ে ওঠে। স্ত্রীর এই সম্পর্ক মেনে নিতে পারেননি সুশান্ত। স্ত্রীর পরকীয়াকে কেন্দ্র করে সুশান্তর সঙ্গে তার শ্বশুরবাড়ির লোকেদের অশান্তি শুরু হয়।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, কয়েকদিন আগে এই অশান্তির জেরে শ্বশুরবাড়ির লোকেরা সুশান্তর মাথা ফাটিয়ে দেয়। অপমানে ১৫ ফেব্রুয়ারি বিষ খায় সুশান্ত। ওই ঘটনার একদিন পর যুবককে চুঁচুড়া ইমামবাড়া হাসপাতালে ভরতি করা হয়। পরে তার অবস্থার অবনতি হলে কলকাতার হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। কলকাতায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার দুপুরে তার মৃত্যু হয়। সুশান্তর মৃত্যুর খবর পাড়ায় এসে পৌঁছাতেই ক্ষিপ্ত এলাকাবাসী মৃতের শ্বশুর বাড়ির সামনে হাজির হয়। অবিলম্বে সুশান্তর স্ত্রী স্বাতীকে তাদের হাতে তুলে দিতে হবে এই দাবিতে রীতিমতো বিক্ষোভ করে।

পুলিশ এসে পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।অভিযুক্তদের উদ্ধার করে চুঁচুড়া থানায় নিয়ে যায়। পুলিশ জানায় এ বিষয়ে মৃতের পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। সূত্র : সংবাদ প্রতিদিন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর