Logo

সেন্টমার্টিনের ছেঁড়া দ্বীপ থেকে ১ লাখ ২৬ হাজার ইয়াবাসহ আনোয়ারার ৫ ব্যাক্তি গ্রেপ্তার

টেকনাফ প্রতিনিধি। / ৩৮ বার
আপডেট সময় : বুধবার, ১৬ মার্চ, ২০২২

টেকনাফের সেন্টমার্টিনের ছেঁড়া দ্বীপে কোস্ট গার্ড অভিযান চালিয়ে ১ লাখ ২৬ হাজার ইয়াবাসহ পাঁচ পাচারকারীকে গ্রেপ্তার করেছে । এ সময় ইয়াবা বহনের দায়ে ট্রলারটিও জব্দ করা হয়েছে।

বুধবার ভোর রাতে সেন্টমার্টিনের ছেঁড়া দ্বীপের ৫ নটিক্যাল মাইল দূরের বঙ্গোপসাগর থেকে ওই সব ইয়াবাসহ তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়।বুধবার দুপুরে বাংলাদেশ কোস্ট গার্ড সদর দপ্তরের মিডিয়া কর্মকর্তা লেঃ কমান্ডার আব্দুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

আটক হওয়া ব্যক্তিরা হলেন, আব্দুল মোতালেবের ছেলে মুহিদুল ইসলাম, সালেহ আহমেদের ছেলে আবুল হোসেন, নুর মোহাম্মদের ছেলে আবুল কাশেম, আবু তাহেরের ছেলে মোহাম্মদ ফজল করিম ও ইয়াকুব আলীর ছেলে মনুর আলী। তাঁরা সকলেই চট্টগ্রাম জেলার আনোয়ারা থানার বাসিন্দা।

কোস্ট গার্ড সদর দপ্তরের মিডিয়া কর্মকর্তা লেঃ কমান্ডার আব্দুর রহমান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সাগর পথে ইয়াবার একটি বড় চালান বাংলাদেশে প্রবেশ করবে বলে জানা যায়। এমন সংবাদে টেকনাফ স্টেশন কমান্ডার লেফটেন্যান্ট কমান্ডার সৈয়দ তৈমুর পাশার নেতৃত্বে একটি দল সেন্টমার্টিনের ছেড়াদ্বীপ সংলগ্ন সমুদ্র এলাকায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হয়। ভোররাতের দিকে সেন্টমার্টিন ছেড়াদ্বীপ হতে আনুমানিক ৫ নটিক্যাল মাইল দূরে মিয়ানমার সীমানা হতে বাংলাদেশ সীমানায় অবৈধভাবে একটি কাঠের নৌকাকে প্রবেশ করতে দেখা যায়। নৌকাটির গতিবিধি সন্দেহজনক মনে হলে কোস্ট গার্ডের সদস্যগণ নৌকাটিকে থামার সংকেত দেয়। এ সময় কোস্ট গার্ডের উপস্থিতি টের পেয়ে নৌকাটি না থেমে দ্রুত মিয়ানমার সীমানায় পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। দ্রুত তাদের ধাওয়া করে নৌকাসহ ৫ জনকে আটক করা হয়।

পরবর্তীতে নৌকাটি তল্লাশি করে পানির ড্রামের ভেতর লুকিয়ে রাখা ১ লাখ ২৬ হাজার ইয়াবা জব্দ করা হয়।

আব্দুর রহমান আরও বলেন, জব্দকৃত ইয়াবা ট্যাবলেট ও ইয়াবা পাচার কাজে ব্যবহৃত কাঠের নৌকা এবং আটককৃত পাচারকারীদের পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য টেকনাফ মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর