Logo

ইয়াবা না পেয়ে প্রবাসীকে নির্যাতনের অভিযোগ, বিজিবির ৩ সদস্য ক্লোজ

কক্সবাজার প্রতিনিধি। / ৩০ বার
আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ৮ সেপ্টেম্বর, ২০২২

চেকপোস্টে তল্লাশির সময় ইয়াবা না পেয়ে আবদুল্লাহ (৩৫) নামের এক প্রবাসীকে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে বিজিবি সদস্যদের বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার (৬ সেপ্টেম্বর) রাত ৯টার দিকে কক্সবাজার টেকনাফ উপজেলার শামলাপুর শালখালী বিজিবি চেকপোস্টে এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনার সত্যতা পাওয়ায় জড়িত বিজিবির ৩ সদস্যকে ক্লোজ করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন টেকনাফ-২ বিজিবি ব্যাটালিয়নের কমান্ডার মাহফুজুর রহমান।

মারধরের শিকার প্রবাসী আব্দুল্লাহ টেকনাফ উপজেলার হাইউক খালী পাড়ার মৃত শফিউজ্জামানের ছেলে। তিনি জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

ভুক্তভোগী আবদুল্লাহ জানান, সম্প্রতি মায়ের মৃত্যুর খবর শুনে মালয়েশিয়া থেকে দেশে আসেন। সংসারে দুজন স্ত্রী রয়েছে তার। প্রথম স্ত্রী টেকনাফে এবং দ্বিতীয় স্ত্রী কুমিল্লায় থাকেন। ঘটনার দিন কুমিল্লা থেকে টেকনাফে এসেছিলেন মায়ের কবর জিয়ারত করতে।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, মঙ্গলবার কবর জিয়ারত শেষে প্রথম স্ত্রীর থেকে বিদায় নিয়ে সন্ধ্যায় টেকনাফ থেকে নীলদরিয়া নামে বাস করে কক্সবাজার ফেরার পথে শালখালী বিজিবি চেকপোস্টে পৌঁছালে বিজিবির একজন সদস্য আমার দেহ তল্লাশি করে। কিছু না পেয়ে একটি গোপন কক্ষে নিয়ে উলঙ্গ করে তল্লাশি করে।

এ সময় বিজিবির সদস্যরা কিছু না পেয়ে তোর কাছে ইয়াবা আছে বলে আমাকে থাপ্পড় মারে। স্যার আমার কাছে কিছু নেই বললেও লাঠি দিয়ে বেধড়ক মারধর করতে থাকে। কিছুক্ষণ মারধরের পর একটি খালি জায়গায় নিয়ে ইয়াবা আছে বলে বল প্রয়োগ করে মলত্যাগ করান। এতেও ইয়াবা না পেয়ে বিজিবির দুই সদস্য ক্ষিপ্ত হয়ে শালার ব্যাটা তোর কাছে ইয়াবা আছে বলে আবারো মারধর করেন। পরে আমি অজ্ঞান হয়ে পড়ে যায়। কিছুক্ষণ পর মুমূর্ষু অবস্থায় আমাকে একটা গাড়িতে তুলে দেন। ওই গাড়িটা আমাকে টার্মিনাল এসে ফেলে দিয়ে চলে যায়।

কক্সবাজার টার্মিনালে মুমূর্ষু অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন শামসুল আলম শ্রাবণ নামে এক পথচারী। পরে সেখান থেকে তাকে উদ্ধার করে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়।

পথচারী শামসুল আলম শ্রাবণ বলেন, তাকে উদ্ধারের পর জানতে চাইলে আমাকে বলেন, তাকে বিজিবি চেকপোস্টে ইয়াবা না পেয়ে মারধর করেছে। পরে আমি তার অবস্থার অবনতি দেখে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নিয়ে আসি। তার অবস্থা তেমন ভালো না। তার পরিবারকে খোঁজা হচ্ছে। প্রবাসীকে নির্যাতনের বিষয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক প্রতিক্রিয়া দেখা যাচ্ছে।

টেকনাফ-২ বিজিবি ব্যাটালিয়নের কমান্ডার মাহফুজুর রহমান জানান, চেকপোস্ট একজন প্রবাসীকে নির্যাতনের ঘটনায় বিজিবির ৩ সদস্যকে ক্লোজ করা হয়েছে।

বিজিবির পক্ষ থেকে আরও জানানো হয়, মূলত ভুল তথ্যের ভিত্তিতে ওই প্রবাসীকে তল্লাশি করেছে বিজিবির সদস্যরা। একইসঙ্গে তাকে মারধর করার বিষয়েও সত্যতা পাওয়া ওই দিন ঘটনার সময় চেকপোস্ট থাকা বিজিবির ৩ সদস্যকে ক্লোজ করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নিতে সদর দপ্তরকে সুপারিশ করা হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর