Logo

কক্সবাজারে কটেজ জোনে টর্চার সেলের ঘটনার মূলহোতাসহ গ্রেফতার ২

কক্সবাজার প্রতিনিধি। / ২৩ বার
আপডেট সময় : শুক্রবার, ৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২

কক্সবাজারের কটেজ জোনের শিউলি কটেজের টর্চার সেলের ঘটনার মূলহোতা লোকমানসহ দুই আসামিকে গ্রেফতার করেছে ট্যুরিস্ট পুলিশ।

শুক্রবার (৯ সেপ্টেম্বর ) রাত দুইটায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে কটেজ জোনের শিউলি কটেজ থেকে তাদের আটক করা হয়।

আটককৃত লোকমান ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার কথা প্রাথমিকভাবে স্বীকার করেছে। কটেজ জোনের অপরাধচক্র ও তাদের আশ্রয়-প্রশ্র‍য় দাতাদের ব্যাপারেও গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছে বলে জানিয়েছেন কক্সবাজার ট্যুরিস্ট পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রেজাউল করিম।

তিনি আরও জানান, কটেজ জোনের আশপাশের বেশ কয়েকজনের নাম বলেছে যারা নিয়মিত এসব কটেজ থেকে চাঁদা নিয়ে থাকে। দৈনিক, সাপ্তাহিক ও মাসিক হিসেবে এসব চাঁদা তারা নিয়ে থাকে। পর্যটকদের আবাসিক হোটেল হিসেবে ব্যবহারের আড়ালে মোট ৬টি কটেজে অবৈধ ব্যবসা পরিচালনা করা হয়। এসব কটেজে টার্গেট করে দালালদের মাধ্যমে পর্যটক আনা হয় এবং নারী ও মাদক দিয়ে তাদের ব্ল্যাকমেইল করে সবকিছু কেড়ে নেওয়া হয়। লোকমানের দেওয়া তথ্য মতে জন্য পাহাড়তলীর ইমরান, লাইটহাউজ পাড়ার রমজান, কালু, খোকা, বাহারছড়ার সুমন, আজিজ, মিজান- এরা প্রত্যেকেই সপ্তাহে ১০০০ টাকা করে চাঁদা নেয়।

তিনি জানান, এছাড়া বাহারছড়ার পাগলা রফিক, লাইটহাউজ পাড়ার কালু, মুনসুর, মাহফুজ, খালেক ও জমির, পাহাড়তলীর নাছির প্রত্যেকেই সপ্তাহে ৫০০ টাকা করে চাঁদা নেয় বলে লোকমান স্বীকার করেন। এছাড়া লাইট হাউজ পাড়ার রাসেল, ফাহিম, কলাতলীর আমান প্রতি সপ্তাহে ৩০০ টাকা করে, মোতালেব ৬০০ টাকা, লাইটহাউজ পাড়ার শুক্কুর সপ্তাহে ১৫০০, নেজাম সপ্তাহে ২০০ টাকা করে চাঁদা নেয় বলে স্বীকার করেছে। প্রাপ্ত তথ্যগুলো যাচাই বাছাই করে জড়িত সবাইকে আইনের আওতায় আনা হবে। গ্রেফতারকৃত আসামি লোকমান সরোয়ার ও আ. গফুরকে কোর্টে প্রেরণ করা হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর