Logo

করোনার চাইতে বাড়ছে ভয়ঙ্কর চাল চোর?

আব্দুর রশিদ, পেকুয়া প্রতিনিধি: / ২৩৭ বার
আপডেট সময় : রবিবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২০

করোনার শনাক্ত রোগীর সংখ্যা যেভাবে বাড়ছে, তাঁর থেকে বেশি গতিতে বাড়ছে চাল চোরের সংখ্যা। দেশের বিভিন্ন স্থানে চাল চোর পাওয়া যাচ্ছে এবং অধিকাংশ চাল চোররাই জনপ্রতিনিধি। জনপ্রতিনিধিরা যেখানে এই দূর্যোগে আর্তমানবতার সেবার জন্য জনগণের পাশে দাঁড়াবে, যখন তাঁরা তাঁদের নিজেদের সবকিছু উজাড় করে দিবে গরীব, দুঃস্থ, দুর্ভাগা মানুষদের জন্য। কিন্তু ঘটছে তাঁর উল্টো চিত্র। জনপ্রতিনিধিরা গরীবদের জন্য দেয়া চাল আত্মসাৎ করছে, এমনকি ওএমএস-এর চাল আত্মসাৎ করার খবর পাওয়া যাচ্ছে এবং এই চালগুলো পাওয়া যাচ্ছে বিভিন্ন জনপ্রতিনিধিদের গুদামে। আর এই দুর্নীতি বন্ধ করার জন্য প্রধানমন্ত্রী বারবার নির্দেশনা দিচ্ছেন, প্রধানমন্ত্রী বলছেন যে যারা এই সময়ে দুর্নীতি করবে তাঁদের ক্ষমা করা হবেনা। তবে চোরে না শোনে ধর্মের কাহিনী। এই চাল চোররা যেন দুর্বিনীত হয়ে উঠছে, কারো কথাই তাঁরা শুনছে না।

ইতিমধ্যে আইন প্রয়োগকারী সংস্থা, প্রশাসন অনেক চাল চোরদের গ্রেপ্তার করেছে, কিন্তু তাতেও যেন কারো টনক নড়ছে না; চাল চুরি রয়েছে এখনো অব্যাহত। প্রশ্ন উঠেছে যে, একজন নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি, যিনি জনগণের ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন। যিনি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তিনি কেন চাল চোর হবে? তিনি কেন জনগণের সম্পদ আত্মসাৎ করবে, দুর্ভিক্ষ মানুষের খাবার কেড়ে নিবে? এই প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে গিয়ে আমরা দেখেছি যে রাজনীতিতে যে অবক্ষয়, সেই অবক্ষয়ের ধারায় চাল চোরদের সৃষ্টি হয়েছে। এই চাল চোররা হলো রাজনীতির ভাইরাস।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর