Logo

উখিয়ায় কুকুরের উপদ্রব বৃদ্ধিঃ আতঙ্কে পথচারিরা

হুমায়ুন কবির জুশান / ১৯০ বার
আপডেট সময় : রবিবার, ৮ নভেম্বর, ২০২০

কক্সবাজারের উখিয়ার সদর ষ্টেশন, রুমখা বাজার, কোটবাজার, মরিচ্যা বাজার,কুতুপালং,বালুখালী পালংখালীসহ কক্সবাজার-টেকনাফ সড়কে ঝাঁকে ঝাঁকে কুকুরের অবাধ বিচরণ ও উপদ্রব আশঙ্খাজনকভাবে বেড়েছে। পথচারি ও চালকরা কুকুরের ভয়ে আতঙ্কিত থাকেন। ভুক্তভোগিরা বলেন, হরহামেশা এসব চোখে পড়লেও প্রতিকারে কেউ ব্যবস্থা নেয়নি। সরেজমিন এই প্রতিবেদক উখিয়া কোটবাজার হয়ে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়ক দিয়ে যাওয়ার পথে রুমখা বাজার এলাকায় সড়কে কুকুরের উপদ্রব দেখতে পাই। পথচারি নুরুল আলম বলেন, রুমখা বাজারে যেতে হরহামেশায় কুকুরের দল রাস্তার ঠিক মধ্যখান দিয়ে চলাচল করে থাকে। আমরা পথচারিরা আতঙ্কিত থাকি। মোহাম্মদ ইসলাম বলেন, আমি আমার বন্ধু মোস্তাককে নিয়ে বাইকে করে কক্সবাজার যাচ্ছিলাম। একদিকে যানজট অন্যদিকে জনজট। কক্সবাজার-টেকনাফ সড়কে নতুন করে যুক্ত হচ্ছে কুকুরের উপদ্রব। কুকুরকে সাইড দিতে গিয়ে দুর্ঘটনায় পতিত হচ্ছিলাম। অল্পের জন্যে বেচে গেলাম। উখিয়ার অলিতে-গলিতে হোটেল-রেস্তোরার সামনে বেওয়ারিশ কুকুর ঘুর ঘুর করছে। যাত্রী সাধারণ কেউ কেউ ভয়ে কুকুর এড়িয়ে দূর দিয়ে চলাচল করছে। উখিয়া পাতাবাড়ি এলাকার স্বপন বড়ুয়া বলেন, উখিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নতুন ভবনের নিচ তলায় টিকেট কাউন্টারের সামনে কুকুর দেখে আমার ছোট ছেলে ও তার মা ভয় পেয়ে যায়। কিছুক্ষণ পর হাসপাতালের পুরনো ভবনের ভেতরে মহিলা ওয়ার্ডে যাওয়ার সময় আরো একটি কুকুর সিড়ি দিয়ে দ্বিতীয় তলায় উঠতে দেখা যায়। সেখানে কিছু সময় ঘুরা ঘুরি করার পর দোতলা থেকে নেমে জরুরী বিভাগের সামনে শুয়ে পড়ে। উখিয়া দারোগা বাজারে মাছ কিনতে গেলেন এনজিও কর্মী সানজিদা আলম। কথা হয় তার সাথে। তিনি বলেন, বাজার করার সময় ঘেউ ঘেউ করছে একটি কুকুর। কুকুরটির গলায় বড় একটি ক্ষত রয়েছে, যা পঁচে গিয়ে সেখান থেকে দূর্গন্ধ ছড়াচ্ছে এবং ক্ষতের চার পাশে মাছি ভ্যান ভ্যান করছে। কুকুরটিকে দেখে আমি আতঙ্কিত হয়ে পড়ি এবং নাক চেপে ধরে সেখান থেকে ভয়ে ভয়ে চলে আসি। বাজারে এত লোক কাউকে কুকুর তাড়ানোর কোনো পদক্ষেপ নিতে দেখি নাই। অথচ কুকুর অনেক রোগের জীবাণু বহন করে। কুকুর জলাতঙ্ক রোগের ভাইরাস বহন করে। তাছাড়া এসব কুকুর ময়লা আর্বজনায় ঘোরে। সেখান থেকে জীবাণু নিয়ে ছড়াতে পারে। আমি উখিয়া বঙ্গমাতা মহিলা কলেজের পাশে থাকি। প্রতিদিন মহিলা কলেজের রাস্তা দিয়ে আসা-যাওয়া করি। এই মহিলা কলেজে যাওয়ার রাস্তার পাশে বিশাল আবর্জনার ভাগাড়। উখিয়াতে এসব দেখার যেন কেউ নেই। যত্রতত্র ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকছে নানা ধরনের ময়লা আবর্জনা। এমন সব অস্বাস্থ্যকর দৃশ্যের হরহামেশা দেখা মিলছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর